الفِعْلُ الْمَاضِي এর فَاعِلٌ বা কর্তা

 

আমরা এর পূর্বে কর্তা হিসেবে প্রকাশ্য ইসমকে দেখেছি। এখন আমরা নিচের চার্টে ক্রিয়ার মধ্যে অবস্থিত বিভিন্ন কর্তা দেখব।

বহুবচন

দ্বিবচন

একবচন

 

ذَهَبُوْا

ذَهَبَا

ذَهَبَ

পুং

فَاعِلٌ=وْ=هُمْ

فَاعِلٌ=ا=هُمَا

فَاعِلٌ=مُسْتَتِرٌ * =هُوَ

 

ذَهَبْنَ

ذَهَبَتَا

ذَهَبَتْ

স্ত্রী

فَاعِلٌ=نَ=هُنَّ

فَاعِلٌ=ا=هُمَا

فَاعِلٌ=مُسْتَتِرٌ * =هِيَ

 

ذَهَبْتُمْ

ذَهَبْتُمَا

ذَهَبْتَ

পুং

فَاعِلٌ=تُ=أَنْتُمْ

فَاعِلٌ=تُ=أَنْتُمَا

فَاعِلٌ=تَ=أَنْتَ

 

ذَهَبْتُنَّ

ذَهَبْتُمَا

ذَهَبْتِ

স্ত্রী

فَاعِلٌ=تُ=أَنْتُنَّ

فَاعِلٌ=تُ=أَنْتُمَا

فَاعِلٌ=تِ=أَنْتِ

 

ذَهَبْنَا

 

ذَهَبْتُ

উভয়

فَاعِلٌ=نَا=نَحْنُ

 

فَاعِلٌ=تُ=أَنَا

 

 

مُسْتَتِرٌ * শব্দের অর্থ গুপ্ত অর্থাৎ ক্রিয়ার মধ্যে এদের খুঁজে পাওয়া যায় না যেমন  ذَهَبَ এখানে তিনটা বর্ণই ক্রিয়া মুল আবার ذَهَبَتْ যেখানে تْ হল স্ত্রী বাচক হওয়ার আলামত এই দুই ক্ষেত্রে কর্তা  مُسْتَتِرٌ বা উহ্য আছে।  

ফায়িল সংশ্লিষ্ট কয়েকটি বিষয়ঃ

১) ফেলের ফায়িল যদি مُؤَنَّثٌ غَيْرُ حَقِيْقِيٌّ হয় অথবা জামউ তাকছির হয় অথবা মুয়ান্নাস হাকিকি কিন্তু তা ফেলের সাথে সংলগ্ন না থাকে তাহলে ফেলটা পুরুষবাচক বা স্ত্রীবাচক উভয়ই হতে পারে যেমনঃ

 

طَلَعَ الشَّمْسُ

طَلَعَتِ الشَّمْسُ

সূর্য উদয় হয়েছে

সূর্য উদয় হয়েছে

قَالَتِ الرِّجَالُ

قَالَ الرِّجَالُ

লোকেরা বলেছে

লোকেরা বলেছে

أَكْرَمَ مِنْ القَلْبِ فَاطِمَةُ أُمَّهَا

أَكْرَمَتْ مِنْ القَلْبِ فَاطِمَةُ أُمَّهَا

ফাতেমা তার মাতাকে অন্তর থেকে সম্মান করে

ফাতেমা তার মাতাকে অন্তর থেকে সম্মান করে

 

২) ফায়িল একটি প্রকাশ্য ইসম হলে ফেল এমন হবে যাতে ফায়িল উল্লেখ থাকবে না। কারন একটি ক্রিয়ার দুটি কর্তা থাকতে পারে না। যেমনঃ   ذَهَبُوْا الطُّلاَّبُ বাক্যটি  সঠিক নয় কারন ذَهَبُوْا এর و  এবং الطُّلاَّبُ উভয়ই হল فَاعِلٌসেক্ষেত্রে সঠিক প্রয়োগ হবে, ذَهَبَ الطُّلاَّبُ যেখানে الطُّلاَّبُ   হল فَاعِلٌ

 

কুরানীয় উদাহরণঃ

অতঃপর যখন তাঁরা দুই সুমুদ্রের সঙ্গমস্থলে পৌছালেন,

فَلَمَّا بَلَغَا مَجْمَعَ بَيْنِهِمَا

তাঁরা নিজেদের মাছের কথা ভুলে গেলেন

نَسِيَا حُوتَهُمَا

আর শ্মরণ করো যখন আমি তোমাদের কাছ থেকে অঙ্গীকার নিয়েছিলাম

وَإِذْ أَخَذْنَا مِيثَاقَكُمْ

এবং তুর পর্বতকে তোমাদের মাথার উপর তুলে ধরেছিলাম

وَرَفَعْنَا فَوْقَكُمُ الطُّورَ

আর তোমাদের নিদ্রাকে করেছি ক্লান্তি দূরকারী

وَجَعَلْنَا نَوْمَكُمْ سُبَاتًا

আর তোমাদেরকে জোড়া জোড়া সৃষ্টি করেছি

وَخَلَقْنَاكُمْ أَزْوَاجًا

প্রত্যেকেই জেনে নিবে সে কি উপস্থিত করেছে

عَلِمَتْ نَفْسٌ مَّا أَحْضَرَتْ

আর যখন আমি তোমাদের জন্য সাগরকে বিভক্ত করেছি

وَإِذْ فَرَقْنَا بِكُمُ الْبَحْرَ

অতঃপর তোমাদেরকে উদ্ধার করেছি এবং ডুবিয়ে দিয়েছি ফেরআউনের লোকদিগকে

فَأَنجَيْنَاكُمْ وَأَغْرَقْنَا آلَ فِرْعَوْنَ