সুরা বাকারাহ (২৫-২৫)

এবং সুসংবাদ দিন তাদের যারা ঈমান এনেছে সতকর্ম করেছে (২-২৫)

وَبَشِّرِ الَّذِينَ آمَنُوا وَعَمِلُوا الصَّالِحَاتِ

ভালো কাজ

صَالِحَةٌ ج صَالِحَاتٌ

সমান নয় ভাল মন্দ। ৪১:৩৪

وَلَا تَسْتَوِي الْحَسَنَةُ وَلَا السَّيِّئَةُ

সৎকাজ, সুশ্রী,

حَسَنَةٌ ج حَسَنَاتٌ

আমি তাঁদের প্রতি ওহী নাযিল করলাম সৎকর্ম করার ২১:৭৩

وَأَوْحَيْنَا إِلَيْهِمْ فِعْلَ الْخَيْرَاتِ

উত্তম, বাছাইকরা, মনোনীত

خَيْرَةٌ ج خَيْرَاتٌ

আর ক্ষমা করার অভ্যাস গড়ে তোল, সৎকাজের নির্দেশ দাও

:১৯৯

خُذِ الْعَفْوَ وَأْمُرْ بِالْعُرْفِ

সৎকর্ম

عُرُفٌ

আর তোমাদের মধ্যে এমন একটা দল থাকা উচিত যারা আহবান জানাবে সৎকর্মের প্রতি, নির্দেশ দেবে ভাল কাজের :১০৪

وَلْتَكُن مِّنكُمْ أُمَّةٌ يَدْعُونَ إِلَى الْخَيْرِ وَيَأْمُرُونَ بِالْمَعْرُوفِ

সৎকর্ম, ভাল কাজের

الْمَعْرُوفُ

কিন্তু সে সমস্ত বিনয়ী লোকদের পক্ষেই তা সম্ভব। :৪৪

وَإِنَّهَا لَكَبِيرَةٌ إِلَّا عَلَى الْخَاشِعِينَ

সততা, কল্যাণ, পুণ্য

بِرٌّ (بَرَّ-يَبِرُّ)

অতঃপর তাকে তার অসৎকর্ম সৎকর্মের জ্ঞান দান করেছেন,

৯১:

فَأَلْهَمَهَا فُجُورَهَا وَتَقْوَاهَا

আল্লাহভীতি, ধার্মিকতা

تُقَاةٌ، تَقْوًى

হাঁ, যে ব্যক্তি পাপ অর্জন করেছে

:৮১

بَلَىٰ مَن كَسَبَ سَيِّئَةً

পাপ, অপরাধ

سَيِّئَةٌ ج سَيِّئَاتٌ

নিশ্চয় আল্লাহ সমস্ত গোনাহ মাফ করেন। ৩৯:৫৩

إِنَّ اللَّهَ يَغْفِرُ الذُّنُوبَ جَمِيعًا

পাপ, অন্যায়, গুনাহ, অপরাধ, দোষ, ত্রুটি,

ذَنْبٌ ج ذُنُوبٌ

আমি চাই যে, আমার পাপ তোমার পাপ তুমি নিজের মাথায় চাপিয়ে নাও। :২৯

إِنِّي أُرِيدُ أَن تَبُوءَ بِإِثْمِي وَإِثْمِكَ

অন্যায়, গুনাহ, পাপ, অপরাধ, অবাধ্যতা

إِثْمٌ

আপনি বলে দিন আমি যদি রচনা করে এনে থাকি, তবে সে অপরাধ আমার, ১১:৩৫

قُلْ إِنِ افْتَرَيْتُهُ فَعَلَيَّ إِجْرَامِي

পাপ, অপরাধ

اِجْرَامٌ

নিশ্চয় তাদেরকে হত্যা করা মারাত্নক অপরাধ। ১৭:৩১

إِنَّ قَتْلَهُمْ كَانَ خِطْئًا كَبِيرًا

ভুল করা, পাপ

خِطْأٌ

তাদের গোনাহসমূহের দরুন তাদেরকে নিমজ্জিত করা হয়েছে

৭১:২৫

مِّمَّا خَطِيئَاتِهِمْ أُغْرِقُوا

ভুল, পাপী

خَطِيئَةٌ ج خَطِيئَاتٌ، خَطَايَا

তবে পরস্পর কোন মীমাংসা করে নিলে তাদের উভয়ের কোন গোনাহ নাই। :১২৮

فَلَا جُنَاحَ عَلَيْهِمَا أَن يُصْلِحَا بَيْنَهُمَا صُلْحًا

পাপ, ক্ষতি, অপরাধ, দোষারোপ

جُنَاحٌ

নিশ্চয় এটা বড়ই মন্দ কাজ।

:

إِنَّهُ كَانَ حُوبًا كَبِيرًا

মন্দ, পাপ

حُوْبٌ

এবং বারণ করবে অন্যায় কাজ থেকে :১০৪

وَيَنْهَوْنَ عَنِ الْمُنكَرِ

ভুল,

অন্যায়

الْمُنكَرُ

তারা সদাসর্বদা ঘোরতর পাপকর্মে ডুবে থাকত। ৫৬:৪৬

وَكَانُوا يُصِرُّونَ عَلَى الْحِنثِ الْعَظِيمِ

পাপাচার, অপরাধ, কসম ভঙ্গ

حِنْثٌ

যেসব জন্তুর উপর আল্লাহর নাম উচ্চারিত হয় না, সেগুলো থেকে ভক্ষণ করো না; ভক্ষণ করা গোনাহ। :১২১

وَلَا تَأْكُلُوا مِمَّا لَمْ يُذْكَرِ اسْمُ اللَّهِ عَلَيْهِ وَإِنَّهُ لَفِسْقٌ

পাপ, অন্যায়, অপকর্ম

فِسْقٌ، فُسُوقٌ (فَسَقَ-يَفْسُقُ)

অতঃপর তাকে তার অসৎকর্ম সৎকর্মের জ্ঞান দান করেছেন

৯১:

فَأَلْهَمَهَا فُجُورَهَا وَتَقْوَاهَا

পাপ, অন্যায়, ব্যভিচার

فُجُورٌ (فَجَرَ-يَفْجُرُ)

ব্যবস্থা তাদের জন্যে, তোমাদের মধ্যে যারা ব্যভিচারে লিপ্ত হওয়ার ব্যাপারে ভয় করে। :২৫

ذَٰلِكَ لِمَنْ خَشِيَ الْعَنَتَ مِنكُمْ

কষ্ট, পাপ, ব্যভিচার

عَنَتٌ

তার পাদদেশে নহরসমূহ প্রবাহমান থাকবে। (২-২৫)

تَجْرِي مِن تَحْتِهَا الْأَنْهَارُ

প্রবাহিতহওয়া, বয়ে চলা

جَرَى- يَجْرِي

অতঃপর স্রোতধারা প্রবাহিত হতে থাকে নিজ নিজ পরিমাণ অনুযায়ী।

১৩:১৭

فَسَالَتْ أَوْدِيَةٌ بِقَدَرِهَا فَاحْتَمَلَ السَّيْلُ زَبَدًا رَّابِيًا

প্রবাহিত হওয়া

سَالَ- يَسِيلُ

অতঃপর এর ভেতর থেকে ফুটে বের হল বারটি প্রস্রবণ। :১৬০

فَانبَجَسَتْ مِنْهُ اثْنَتَا عَشْرَةَ عَيْنًا

প্রবাহিত হওয়া, ঝর্না ঝরা

اِنْبَجَسَ-يَنْبَجِسُ

অতঃপর তা থেকে প্রবাহিত হয়ে এল বারটি প্রস্রবণ। :৬০

فَانفَجَرَتْ مِنْهُ اثْنَتَا عَشْرَةَ عَيْنًا

প্রবাহিত হওয়া

اِنْفَجَرَ-يَنْفَجِرُ

পাথরের মধ্যে এমন আছে; যা থেকে ঝরণা প্রবাহিত হয়, :৭৪

وَإِنَّ مِنَ الْحِجَارَةِ لَمَا يَتَفَجَّرُ مِنْهُ الْأَنْهَارُ

প্রবাহিত হওয়া

تَفَجَّرَ- يَتَفَجَّرُ

আমি তার জন্যে গলিত তামার এক ঝরণা প্রবাহিত করেছিলাম। ৩৪:১২

وَأَسَلْنَا لَهُ عَيْنَ الْقِطْرِ

প্রবাহিত করা

أَسَالَ- يُسِيلُ

যে পর্যন্ত না আপনি ভূপৃষ্ঠ থেকে আমাদের জন্যে একটি ঝরণা প্রবাহিত করে দিন।  ১৭:৯০

حَتَّىٰ تَفْجُرَ لَنَا مِنَ الْأَرْضِ يَنبُوعًا

দ্রুতবেগে প্রবাহিত করা, ফাটিয়ে বের করা

فَجَّرَ-يُفَجِّرُ (تَفْجِيرٌ)

তিনি পাশাপাশি দুই দরিয়া প্রবাহিত করেছেন।  ৫৫:১৯

مَرَجَ الْبَحْرَيْنِ يَلْتَقِيَانِ

প্রবাহিত করা

مَرَجَ-يَمْرُجُ

 

 

নীচে

تَحْتَ

অপরজন বললঃ আমি দেখলাম যে, নিজ মাথায় রুটি বহন করছি।

১২:৩৬

وَقَالَ الْآخَرُ إِنِّي أَرَانِي أَحْمِلُ فَوْقَ رَأْسِي خُبْزًا

উপর, উপরে, উপরিভাগ,

فَوْقَ

 

 

নদী

نَهَرٌ ج أَنْهَارٌ

অতঃপর স্রোতধারা প্রবাহিত হতে থাকে নিজ নিজ পরিমাণ অনুযায়ী।

১৩:১৭

فَسَالَتْ أَوْدِيَةٌ بِقَدَرِهَا

উপত্যকা

أَوْدِيَةٌ

তোমার পালনকর্তা তোমার পায়ের তলায় একটি নহর জারি করেছেন।

১৯:২৪

قَدْ جَعَلَ رَبُّكِ تَحْتَكِ سَرِيًّا

ঝরণা

سَرِيٌّ

এবং তাদের কষ্ট দূর করে দেই, তবুও তারা তাদের অবাধ্যতায় দিশেহারা হয়ে লেগে থাকবে।

২৩:৭৫

وَكَشَفْنَا مَا بِهِم مِّن ضُرٍّ لَّلَجُّوا فِي طُغْيَانِهِمْ يَعْمَهُونَ

গভীর জলাশয়, অতল দরিয়া, অথৈ সাগর

لُجَّةٌ

এবং সেখানে তাদের জন্য শুদ্ধচারিনী রমণীকূল থাকবে। (২-২৫)

وَلَهُمْ فِيهَا أَزْوَاجٌ مُّطَهَّرَةٌ

স্ত্রী

زَوْجٌ ج أَزْوَاجٌ

তোমাদের ঔরসজাত পুত্রদের স্ত্রী

:২৩

وَحَلَائِلُ أَبْنَائِكُمُ الَّذِينَ مِنْ أَصْلَابِكُمْ

স্ত্রী

حَلِيلَةٌ ج حَلَائِلُ

আর আমার স্বামীও বৃদ্ধ  ১১:৭২

وَهَٰذَا بَعْلِي شَيْخًا

স্বামী

بَعْلٌ ج بُعُولٌ

 

 

শুদ্ধ (যাকে পবিত্র করা হয়েছে)

مُطَهَّرَةٌ (مُطَهَّرُونَ)

এবং পরিশোধিত মধুর নহর।

৪৭:১৫

وَأَنْهَارٌ مِّنْ عَسَلٍ مُّصَفًّى

পবিত্র

مُصَفَّى

তুমি পবিত্র উপত্যকা তুয়ায় রয়েছ।

২০:১২

إِنَّكَ بِالْوَادِ الْمُقَدَّسِ طُوًى

পবিত্র ঘোষিত, নিষ্কলুষ, পবিত্র, পূত, পাক

مُقَدَّسٌ

সুতরাং আপনার মৃত্যু হলে তারা কি চিরঞ্জীব হবে

أَفَإِن مِّتَّ فَهُمُ الْخَالِدُونَ

চিরঞ্জীব, অমর

خَالِدٌ ج خَالِدُونَ

আপনার পূর্বেও কোন মানুষকে আমি অনন্ত জীবন দান করিনি।

২১:৩৪

جَعَلْنَا لِبَشَرٍ مِّن قَبْلِكَ الْخُلْدَ

অমরত্ব, চিরস্থায়ী, শাশ্বত, আবহমান

خُلْدٌ

এটাই অনন্তকাল বসবাসের জন্য প্রবেশ করার দিন। ৫০:৩৪

ذَٰلِكَ يَوْمُ الْخُلُودِ

চিরঞ্জীব হওয়া,

خَلَدَ-يَخْلُدُ (خُلُودٌ)

ওদের জন্যে রয়েছে বিরামহীন শাস্তি। ৩৭:

وَلَهُمْ عَذَابٌ وَاصِبٌ

চিরস্থায়ী, বিরামহীন

وَاصِبٌ

তারা চিরকাল তথায় অবস্থান করবে। :১২২

خَالِدِينَ فِيهَا أَبَدًا

সর্বদা, প্রতিনিয়ত, অনন্তকাল

أَبَدٌ

বলুন, ভেবে দেখ তো, আল্লাহ যদি দিনকে কেয়ামতের দিন পর্যন্ত স্থায়ী করেন ২৮:৭২

قُلْ أَرَأَيْتُمْ إِن جَعَلَ اللَّهُ عَلَيْكُمُ النَّهَارَ سَرْمَدًا إِلَىٰ يَوْمِ الْقِيَامَةِ

ক্রমাগত

سَرْمَدٌ

তারা যদি কোন নিদর্শন দেখে তবে মুখ ফিরিয়ে নেয় এবং বলে, এটা তো চিরাগত জাদু। ৫৪:

وَإِن يَرَوْا آيَةً يُعْرِضُوا وَيَقُولُوا سِحْرٌ مُّسْتَمِرٌّ

চলমান, অবিরাম

مُسْتَمِرٌّ

এবং যারা তাদের সাক্ষ্যদানে সরল-নিষ্ঠাবান ৭০:৩৩

وَالَّذِينَ هُم بِشَهَادَاتِهِمْ قَائِمُونَ

চিরস্থায়ী, স্থিতিশীল

دَائِمٌ ج دَائِمُونَ

আল্লাহর সত্তা ব্যতীত সবকিছু ধবংস হবে। ২৮:৮৮

كُلُّ شَيْءٍ هَالِكٌ إِلَّا وَجْهَهُ

ধ্বংসশীল, ক্ষয়শীল, নশ্বর,

هَالِكٌ ج هَالِكُونَ

ভূপৃষ্টের সবকিছুই ধ্বংসশীল।

৫৫:২৬

كُلُّ مَنْ عَلَيْهَا فَانٍ

ধ্বংসশীল, নশ্বর, বিলুপ্তপ্রায়,

فَانٍ

আল্লাহ পাক নিঃসন্দেহে মশা বা তদুর্ধ্ব বস্তু দ্বারা উপমা পেশ করতে লজ্জাবোধ করেন না।

إِنَّ اللَّهَ لَا يَسْتَحْيِي أَن يَضْرِبَ مَثَلًا مَّا بَعُوضَةً فَمَا فَوْقَهَا

লজ্জাবোধকরা (লজ্জা), বাঁচিয়েরাখা

اِسْتَحْيَى-يَسْتَحْيِي (اِسْتِحْيَاءٌ)

আল্লাহ পাক নিঃসন্দেহে মশা বা তদুর্ধ্ব বস্তু দ্বারা উপমা পেশ করতে লজ্জাবোধ করেন না।

إِنَّ اللَّهَ لَا يَسْتَحْيِي أَن يَضْرِبَ مَثَلًا مَّا بَعُوضَةً فَمَا فَوْقَهَا

আঘাতকরা, দৃষ্টান্তপেশকরাচলা, সিলমারা

ضَرَبَ-يَضْرِبُ(ضَرْبٌ)

 

 

মশা, মাছি, তুচ্ছ বস্তু

بَعُوْضَةٌ

বস্তুতঃ যারা মুমিন তারা নিশ্চিতভাবে বিশ্বাস করে যে, তাদের পালনকর্তা কর্তৃক উপস্থাপিত উপমা সম্পূর্ণ নির্ভূল সঠিক।

فَأَمَّا الَّذِينَ آمَنُوا فَيَعْلَمُونَ أَنَّهُ الْحَقُّ مِن رَّبِّهِمْ

সত্য, সঠিক, উপযুক্ত, প্রাপ্য, দাবী, যুক্তি

حَقٌّ

দয়াময় আল্লাহ যাকে অনুমতি দিবেন, সে ব্যতিত কেউ কথা বলতে পারবে না এবং সে সত্যকথা বলবে। ৭৮:৩৮

لَّا يَتَكَلَّمُونَ إِلَّا مَنْ أَذِنَ لَهُ الرَّحْمَٰنُ وَقَالَ صَوَابًا

সঠিক, সত্য, নির্ভুল, বাস্তবতা

صَوَابٌ

সেই সত্য ওয়াদার কারণে যা তাদেরকে দেওয়া হত। ৪৬:১৬

وَعْدَ الصِّدْقِ الَّذِي كَانُوا يُوعَدُونَ

সঠিক

صِدْقٌ

বলুনঃ সত্য এসেছে এবং মিথ্যা বিলুপ্ত হয়েছে। ১৭:৮১

وَقُلْ جَاءَ الْحَقُّ وَزَهَقَ الْبَاطِلُ

মিথ্যা, অনর্থক, নষ্ট, অকার্যকর, রহিত, বাতিল

بَاطِلٌ

তেমনি করে তোমরা আল্লাহর বিরুদ্ধে মিথ্যা অপবাদ আরোপ করে বল না যে, এটা হালাল এবং ওটা হারাম। ১৬:১১৬

هَٰذَا حَلَالٌ وَهَٰذَا حَرَامٌ لِّتَفْتَرُوا عَلَى اللَّهِ الْكَذِبَ

মিথ্যা

كِذْبٌ، مَكْذُوبٌ

তারা তো অসমীচীন ভিত্তিহীন কথাই বলে। ৫৮:

وَإِنَّهُمْ لَيَقُولُونَ مُنكَرًا مِّنَ الْقَوْلِ وَزُورًا

মিথ্যা কথা, অসত্য কথা,

زُورٌ

এ তো এক পুরাতন মিথ্যা।

(৪৬: ১১)

هَٰذَا إِفْكٌ قَدِيمٌ

মিথ্যা কথা

إِفْكٌ

এটা মনগড়া ব্যাপার বৈ নয়। ৩৮:

إِنْ هَٰذَا إِلَّا اخْتِلَاقٌ

মনগড়া কথা, কাল্পনিক

اخْتِلَاقٌ

সে যদি আমার নামে কোন কথা রচনা করত, ৬৯:৪৪

وَلَوْ تَقَوَّلَ عَلَيْنَا بَعْضَ الْأَقَاوِيلِ

কথা, গল্প, কল্পকাহিনী

أَقْوَالٌ ج أَقَاوِيلُ

তুমি বল, তবে তোমরাও অনুরূপ দশটি সূরা তৈরী করে নিয়ে আস (১৩-১১)

قُلْ فَأْتُوا بِعَشْرِ سُوَرٍ مِّثْلِهِ مُفْتَرَيَاتٍ

মনগড়া কথা

مُفْتَرَى ج (مُفْتَرِيَاتٌ)

জারজ সন্তানকে স্বামীর ঔরস থেকে আপন গর্ভজাত সন্তান বলে মিথ্যা দাবী করবে না ৬০:১২

وَلَا يَأْتِينَ بِبُهْتَانٍ يَفْتَرِينَهُ بَيْنَ أَيْدِيهِنَّ وَأَرْجُلِهِنَّ

অপবাদ, দুর্নাম, বদনাম, হতভম্বকর

بُهْتَانٌ